তাজা খবর:

আগামী ৪ দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা                    নিজ দেশে তীব্র সমালোচনার মুখে ট্রাম্প                    পুলিশবাহী মাইক্রোবাসের সিলিন্ডার বিস্ফোরণ, নিহত ৩                    পুতিনের সঙ্গে বৈঠক শুভ সূচনা: ট্রাম্প                    সুষ্ঠু ভোট কারচুপির আভাস দিয়েছেন কাদের : রিজভী                    যুদ্ধাপরাধ: মৌলভীবাজারের চার আসামির রায় মঙ্গলবার                    ট্রাক উল্টে পড়ল তিন অটোরিকশার ওপর, নিহত ৪                    ব্রাজিলের পর ফ্রান্স                    বাউফলে শিক্ষার্থীদের ক্লাশ চলছে খোলা আকাশের নিচে                    শহীদদের সম্মানে ৩০ লাখ গাছ লাগানো হবে                    
  • মঙ্গলবার, ১৭ জুলাই ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৫

দেবের খুদে ফ্যানদের জন্য নতুন সারপ্রাইজ

দেবের খুদে ফ্যানদের জন্য নতুন সারপ্রাইজ

দেবের ছবি ‘হইচই আনলিমিটেড’র প্রথম পোস্টারে যাকে বলে হইচই পড়ে গিয়েছিল৷ সেই পোস্টারে

ঘটনায় চাঞ্চল্যকর মোড়! অভিনেত্রীকে গাড়ি নিয়ে তাড়া

ঘটনায় চাঞ্চল্যকর মোড়! অভিনেত্রীকে গাড়ি নিয়ে তাড়া

মাঝ রাস্তায় সায়ন্তিকাকে হেনস্তা! মামলায় নয়া মোড়! ঘটনার সূত্রে পৌঁছতে অভিনেতা সঞ্জয় মুখোপাধ্যায় ওরফে জয়কে

দেখে নিন, হিন্দি ছবির ইতিহাসে সেরা ১০ টি গোপন রহস্য, চমকে উঠবেন!

দেখে নিন, হিন্দি ছবির ইতিহাসে সেরা ১০ টি গোপন রহস্য, চমকে উঠবেন!

১. আমির খান ও জেসিকা হাইনস

একটি সাময়িকীর বরাতে জানা যায় মি.

রক্ষণশীল মুসলিম থেকে যেভাবে লেসবিয়ান হলাম’

রক্ষণশীল মুসলিম থেকে যেভাবে লেসবিয়ান হলাম’

১৯৯১ সালে মাত্র ১৯ বছর বয়সে আমার বয়ফ্রেন্ড যখন প্রথমবার আমাকে এ প্রশ্নটি

বারবাজার হাইওয়ে থানা যানবাহন আটক বানিজ্য করছে

এফএনএস(টিপু সুলতান,কালীগঞ্জ,ঝিনাইদহ) :

24 Jun 2018   06:48:50 PM   Sunday BdST
A- A A+ Print this E-mail this
 বারবাজার হাইওয়ে থানা যানবাহন আটক বানিজ্য করছে

 সরকার ও আইন শৃংখলা রোধ সংস্থা সড়কে ডাকাতি,অবৈধ যা চলাচল বন্ধ ও সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে মূলত হাইওয়ে পুলিশ ও থানা প্রতিষ্ঠা করা হলেও বাস্তবে জন সাধারন কোন উপকার পাচ্ছে না। বরং তারা যানবাহন আটক করে বানিজ্য করছে । বিশেষ করে বারবাজারে হাইওয়ে থানা পুলিশের চাঁদাবাজির কারনে চালক ও মালিকরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে । নছিমন,করিমন,আলমসাধুর নামে, মামলা দিয়ে তারা বাহাবা নিচ্ছ । এর আগে বারবাজার হাইওয়ে থানা পুলিশের বিরুদ্ধে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে ওসি নজরুল ইসলাম ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন ওসব কাগজে নিউজ করে কোন লাভ নেই। ঐ কাগজ আমি বাথরুমে ব্যবহার করি ।যে কথা গুলো বলছিলেন, একাধিক মটর সাইকেল, পিকআপ ধোরে টাকা নেবার সময় উপরো বাক্য দিয়েছেন ওসি নিজেই ।

ঝিনাইদহ কালীগঞ্জ উপজেলার বারবাজারে হাইওয়ে থানা পুলিশের চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বাস, ট্রাক,মাইক্রো, সিএনজিসহ বিভিন্ন পরিবহনের মালিক ও চালকরা। প্রতিমাসে বারবাজার হাইওয়ে থানা পুলিশকে দিতে হচ্ছে ৫ থেকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা। শনিবার সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত ৪৩ টি গাড়ি আটক করে । এর মধ্যে মামলা দিয়েছে মাত্র কয়েকটি । ওসি নজরুল ইসলাম বলেন,শুক্রবার ও শনিবার দু,দিনে ২৭ যানবাহনের নামে মামলা হয়েছে ।এসব মামলার মধ্যে রয়েছে ৭টি ট্রাক । অবশ্য ট্রাক গুলিতে ২২ টন মাল নেওয়ার কথা থাকলে ও ট্রাকে নেওয়া হয়েছে ২৫ টন করে । যে কারনে ট্রাক গুলির নামে মামলা হয়েছে । বেশির ভাগ মামলা হয়েছে আলমসাধু, নছিমন,কারিমন, ইজিবাইক ও ভডভডির নামে । কিন্তু মটর যানের ১৪৯ ধারায় এসব অবৈধ ইঞ্জিন চালিত গাড়ির নামে মামলা হয় না । তার পরে ও মামলা দেওয়া হয়েছে কাগজ কলম ঠিক রাখার জন্য । ওসি নজরুল বলেন, বিভিন্ন অবৈধ গাড়ি ধরে থানায় আনি কিন্তু ক্ষমতাসিন দলের নেতা, ইউপি চেয়ারম্যান, মেম্বর ও পুলিশ বিভাগের উপরি মহলের তদবিরের কারনে গাড়ি ছাড়তে হয় ।
বাস, ট্রাক, মাইক্রো, মিনি ট্রাক,পিকআপ, সিএনজির ফিটনেস ফেল, ট্রাস্ক্র টোকেন ফেল, রুট পারমিট ফেল, ইন্সুরেন্স ও চালকদের লাইসেন্স না থাকায় তাদের কাছ থেকে মাসিক হারে উপরোক্ত টাকা আদায় করা হচ্ছে । যে টাকা প্রতি মাসের প্রথম সপ্তাহে দিতে হয়। বারবাজার হাইওয়ে পুলিশের ওসি নজরুল ইসলাম এ থানায় যোগদানের পর থেকে নিয়োগ করেছে একজন আদায়কারি। আদায়কারি কনষ্টবলের নাম তাজুল ইসলাম। ওসি নজরুল ইসলাম এ টাকায় আদায়কারি কনষ্টবল তাজুল কে কোন সময় সরকারি পোশাক পরা লাগে না এমন কি ডিউটি করা লাগে না। তাজুলের কাট অবৈধ টাকা আদায় করা,ওসি বলে থাকে অবৈধ টাকা আদায়ের জন্য কোন কিছু হলে আমি দেখবো। পুলিশের উপরি মহল কে জানিয়েই এ টাকা নাকি আদায় করে। যশোর, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া, ঢাকা, চুয়াডাংগা সহ দেওেশর বিভিন্ন স্থানের বাস,ট্রাক, মাইক্রো বাসের কাগজপত্র নেই সেসব গাড়ী থেকে মাসিক চুক্তিতে টাকা নেওয়া হয়। বিশেষ করে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত্ ও সন্ধার পর থেকে রাত ১ টা পর্যন্ত কেয়াবাগান ও বারবাজার ৭ মাইলের মাঝে দাড়িয়ে বিভিন্ন যানবাহন দাড় করিয়ে নানা ওজুহাত দেখিয়ে মামলার ভয় দেখিয়ে ১ থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে থাকে।
বারবাজার হাইওয়ে থানার আওতাধীনে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ, মাগুরা ও যশোর জেলা রয়েছে। এর মধ্যে যশোরের নাভারনে ১টি, মাগুরার রামনগরে ১টি ও কুষ্টিয়ার চৌড়হাসে ১টিসহ মোট তিনটি হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ি আছে। এসব জেলার মহাসড়ক ও আঞ্চলিক মহাসড়কে চলাচলকারী বাস-ট্রাক, মাইক্রো, সিএনজি থেকে প্রতি মাসে ৫ থেকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা নেয়া হয়।এর মধ্যে বাস থেকে ৮০ হাজার টাকা, কালীগঞ্জের মাইক্রো থেকে ৬ হাজার, ঝিনাইদহের মাইক্রো থেকে ২৫ হাজার, যশোর জেলা মাইক্রো থেকে ৪০ হাজার, চুয়াডাঙ্গা জেলার মাইক্রো থেকে ১৫ হাজার, কোটচাঁদপুরের মাইক্রো থেকে ১৫ হাজার, জুয়ার মাইক্রো থেকে ২০ হাজার, সাত মাইল থেকে ১৪ হাজার, রাস্তার পাশের ২২ টি তেলের দোকানীদের কাছ থেকে দুই হাজার করে ৪৪ হাজার, নওয়াপাড়া থেকে ৩৩ হাজার, বারবাজার-যশোর রুটে চলাচলকারী সিএনজি থেকে ৩৫ হাজার, ্ কানাইপুর ফরিদপুর থেকে ২৪ হাজার, ঝিনাইদহ থেকে ৩৭ হাজার টাকা সহ ২৭টি বিভিন্ন খাত থেকে প্রতি মাসে ৫ থেকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা মাসিক চুক্তি আদায় করা হয়।বারবাজার-থেকে কালীগঞ্জ গামী সিএনজি চারকরা বলেন, সিএনজি থেকে প্রতিমাসে বারবাজার হাইওয়ে থানাকে মোটা অংকের দিয়ে চলাচল করতে হয়। মাসিক টাকা না দিলে আমাদের বিভিন্ন কারন দেখিয়ে মামলা দেয়া হয়।প্রতি সিএনজি কে মাসে ১,শ টাকা হারে দিতে হয় । সরকার যে কাজের জন্য হাইওয়ে থানায় ওসি সহ অন্যান্নদের দায়িত্ব দিয়েছে, তার কোন কাজেই আসছে না। তাদের কাজ কিভাবে অবৈধ টাকা আদায় করা যাবে। আবার বারবাজার এলাকায় মাদক ব্যবসায়িদের কাছ থেকে ও মাসিক চুক্তিতে নেওয়া হয় টাকা। প্রতিদিন নছিমন, করিমন, আলমসাধু আটকিয়ে থানার সামনে রেখে ৩ থেকে ৫ হাজার টাকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়। বিশেষ করে ঈদের পর থেকে তারা বিভিন্ন যানবাহন আটক করে বানিজ্য করছে বেপরোয়া ভাবে । নছিমন, করিমন, আলমসাধুসহ অবৈধ ইঞ্জিন চালিত যানবাহনের মামলা দেবার কোন নিয়ম নেই । আইন রয়েছে আটক করে রাখা। কিন্তু মহাসড়কে বৈধ চলাচল কারি গাড়ির সাথে রয়েছে মাসিক চুক্তি । যে কারনে ১৪৯ মটর যানবাহনের আইনের বাইরে দেওয়া হচ্ছে মামলা ।
এ ব্যাপারে বারবাজার হাইওয়ে থানার ওসি নজরুল ইসলাম মাসিক টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে খবর লিখে কোন লাভ নেই,আমি যা করি তা গোড়া বেধে করি। আবার আদায়কারি তাজুলের বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, সে কিসের টাকা আদায় করে আমি জানি না। অবশ্য তাজুল বলেন, ওসি স্যারের নির্দেশে আমাকে অনেক কিছু করতে হয়। এমন কি কালীগঞ্জ শহরে ও একজন পাবলিক দালাল রাখা হয়েছে টাকা আদায় করার জন্য ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
 
A- A A+ Print this E-mail this
আপনার পছন্দের এলাকার সংবাদ
পড়তে চাই:
Fairnews24.com, starting the journey from 2010, one of the most read bangla daily online newspaper worldwide. Fairnews24.com has the highest journalist among all the Bangladeshi newspapers. Fairnews24.com also has news service and providing hourly news to the highest number of online and print edition news media. Daily more then 1, 00,000 readers read Fairnews24.com online news. Fairnews24.com is considered to be the most influencing news service brand of Bangladesh. The online portal of Fairnews24.com (www.fairnews24.com) brings latest bangla news online on the go.
৪৮/১, উত্তর কমলাপুর, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
ফোন : +৮৮ ০২ ৯৩৩৫৭৬৪
E-mail: info@fns24.com
fnsbangla@gmail.com
Maintained by : fns24.net