তাজা খবর:

চিতলমারীতে প্রথম অনুষ্ঠিত হল দৃষ্টিনন্দন নবান্ন উৎসব                    বগুড়ার শাজাহানপুরে শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে মারপিট                    লালমনিরহাট সরকারী কলেজ শাখা ছাত্রদল সভাপতির আত্মহত্যা                    কপোতাক্ষের ভাঙ্গনে পাঁচ শতাধিক পরিবার গৃহহীন                    কাউনিয়ার পলি রানী’র পাঁ দিয়ে লিখেই পিএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ                    চরভদ্রাসনে ডাকাত আতঙ্কে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে গ্রামবাসী                    মেহেরপুর জেলা বিএনপি নেতার বাড়ির মুল ফটক থেকে বোমা উদ্ধার                    ব্যাডমিন্টন খেলতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে কলেজ ছাত্র নিহত                    জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে এসএসসি পরীক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার                    পীরগঞ্জে শ্বশুর বাড়িতে এসে যুবকের আত্নহত্যা                    
  • মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭, ৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৪

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দিবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা

ভূমিকম্পের পূর্বাভাস দিবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা

আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স (AI) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে আজ বিশ্বজুড়ে মাতামাতি। হেন কোনো

চিংড়ির বহু গুণ

চিংড়ির বহু গুণ

চিংড়ি শুধু সুস্বাদু খাবারই নয়, এর বহু গুণও রয়েছে। কিন্তু অনেকেরই চিংড়ির এসব গুণের কথা

তরমুজের বীজ খেলে পাবেন এই বিস্ময়কর উপকারিতাগুলো!

তরমুজের বীজ খেলে পাবেন এই বিস্ময়কর উপকারিতাগুলো!

আচ্ছা কে আমাদের শিখিয়েছে বলুন তো এটা ভাল নয়, ওটা ভাল নয়!

মাংশের টুকরোত আল্লাহর নাম

মাংশের টুকরোত আল্লাহর নাম

কোন কাল্পনিক গল্প নয়, অবিশ্বাস্য হলেও সত্য পাবনার আটঘরিয়ায় কোরবানির মাংশের একটি টুকরোও

সিডর কেড়ে নিয়েছে কোলের সন্তান,তবুও থেমে নেই ফাতেমার জীবন-সংসার

এফএনএস (মেজবাহউদ্দিন মাননু; কুয়াকাটা, পটুয়াখালী) :

14 Nov 2017   08:24:57 PM   Tuesday BdST
A- A A+ Print this E-mail this
 সিডর কেড়ে নিয়েছে কোলের সন্তান,তবুও থেমে নেই ফাতেমার জীবন-সংসার

ফাতেমা বেগমের কোল জুড়ে ফুটফুটে আরও দুই সন্তান এসেছে। লামিয়া আর মারিয়া। এক জনের বয়স নয়, আরেক জনের পাঁচ বছর। দুধে-ভাতে না থাকলেও এদেরকে নিয়ে ডাল-ভাতের জীবন চলছে। যে চরে হারায় বুকের সন্তান সেই চরেই ফের ফাতেমা-মনির সিকদার দম্পতির জীবনচলা। আজ ১৫ নবেম্বর, ভয়াল সিডরের দশ বছর। তারপরও ভয়াল সিডরে হারানো সাত মাস বয়সী শিশু বায়েজিদের কথা ভোলতে পারেনি। ২০০৭ সালের ওই ভয়াল রাতে জীবন বাচাতে একমাত্র সন্তান নিয়ে স্বামীর সঙ্গে আশ্রয় কেন্দ্রে ছুটছিলেন এই মা। জলোচ্ছ্বাসের তান্ডব ফাতেমার কোলে আগলে থাকা শিশুকে আচমকা কেড়ে নেয়। ওই শেষ নড়িছেড়া ধন। পাঁচদিন পরে অর্ধগলিত লাশ পেয়েছিলেন। বিয়ের মাত্র দেড় বছর মধ্যে সন্তান হারানোর বিয়োগব্যথা তখনকার কিশোরী মাকে পাগলপ্রায় করে দেয়। এই শ্রমজীবী পরিবারের একমাত্র সন্তানসহ সব কেড়ে নেয়। শুধু ঘরের ভিটির বেলাভূমি ছিল। সেখানে বেসরকারি সংস্থা ফ্রেন্ডশীপের একটি টিনের চালার ঘর পেয়ে ফের বসতি গাড়েন। এখন ওই ঘরটিও নেই। ঘরের বেড়া, চালের কাঠ সব পোকায় খেয়ে সাবাড় করেছে। খুটি কয়টি দাড়িয়ে আছে। পাশেই একটি ঝুপড়ির ঘর করেছেন। এরা নিয়তির ওপর ভরসা করেই বেড়িবাঁধের বাইরে কাউয়ারচর ও গঙ্গামতির চরের সীমানা বরাবর বাস করছেন। ফের যে কোন সময় জলোচ্ছ্বাস আঘাত হানলে নিঃস্ব হবেন- এ যেন জেনেই থাকছেন। সিডরের পরে সব ক’টি বড়-ছোট ঝড়-বন্যা-জলোচ্ছ্বাসের ধকল কেটেছে এখানেই। তবে আশ্রয় কেন্দ্রে যান। কয়দিন আগের নি¤œচাপের প্রভাবে ঘরের পাশেই অস্বাভাবিক জোয়ারের পানি আসে। ভয় পেয়েছিলেন। কিন্তু আশ্রয় ছাড়েননি। সিডরের আজ দশ বছর। এর মধ্যে স্বাস্থ্য কিংবা পরিবার পরিকল্পনার কোন কর্মী তাদের ঘরের চারপাশে যায়নি। দেখেননি চোখে এই চরবধূ। দু’টি সুস্থ কন্যাশিশুর জন্ম দিয়েছেন ঝুপড়ি ঘরেই। যাননি কোন চিকিৎসক কিংবা হাসপাতালে। তবে সন্তানদের টিকা দিয়েছেন প্রায় দেড় কিমি দুরে গিয়ে। বড় মেয়ে লামিয়াকে এনজিওর স্কুলে পাঠান। তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ছে। ছোট মারিয়া এখনও মায়ের সোহাগ আদরে দিন কাটায়। শেষ বিকেলে কথা হচ্ছিল ফাতেমার সঙ্গে। টানা-পোড়েনের সংসারে অনাবিল সুখ না থাকলেও স্বস্তিতেই আছেন। কিন্তু আজও ভোলেননি বড় সন্তান হারানোর বেদনা। জানান, ফি বছর এই দিনে (ওই সন্তান) বায়েজিদের জন্য কোরান পড়েন। নামাজ পড়ে আল্লাহর দরবারে কাঁদেন। মন কাদে, আজ বায়েজিদও স্কুলে যেত। খেলত মায়ের সামনে। আঁচল ধরে বায়না করত। আরও কত কী। এসব বলতে বলতে আর ভাবনায় ছল ছল করছিল মা ফাতেমার দুই চোখ। দীর্ঘশ^াস ছেড়েই পাল্টা প্রশ্ন। এসব লেইখ্যা কী করবেন। আমরাও থমকে গেলাম। উত্তর জানা আছে- কিন্তু বলার মতো নয়। সিডরের ওই ভয়াল স্মৃতি আগলে ধরে আগামির ভবিষ্যৎ ওই চরের বেলাভূমিতে আবার স্বপ্নের সংসার জীবন চলছে ফাতেমার। ঝড়-জলোচ্ছ্বাসের নিত্যঝুঁকি নিয়ে ফাতেমাদের দিন চলা থেমে নেই। যেন জীবনের জন্য জীবন যুদ্ধ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
 
A- A A+ Print this E-mail this
আপনার পছন্দের এলাকার সংবাদ
পড়তে চাই:
Fairnews24.com, starting the journey from 2010, one of the most read bangla daily online newspaper worldwide. Fairnews24.com has the highest journalist among all the Bangladeshi newspapers. Fairnews24.com also has news service and providing hourly news to the highest number of online and print edition news media. Daily more then 1, 00,000 readers read Fairnews24.com online news. Fairnews24.com is considered to be the most influencing news service brand of Bangladesh. The online portal of Fairnews24.com (www.fairnews24.com) brings latest bangla news online on the go.
৪৮/১, উত্তর কমলাপুর, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
ফোন : +৮৮ ০২ ৯৩৩৫৭৬৪
E-mail: info@fns24.com
fnsbangla@gmail.com
Maintained by : fns24.net